ব্রিটেনে আসছে নতুন এয়ারলাইন্স ফিরনাছ এয়ারওয়েজ

fairness[1]অনলাইন রিপোর্টঃ  ব্রিটেন  থেকে ওয়েস্ট আফ্রিকা, ইন্ডিয়ান সাব কন্টিনেন্ট ও মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন রুটে বিমান সার্ভিসের বিপুল সম্ভাবনাকে সামনে রেখে যাত্রা শুরু করতে যাচেছ যুক্তরাজ্য ভিত্তিক ফুল সার্ভিস নেটওয়ার্ক এয়ারলাইন্স ফিরনাছ এয়ারওয়েজ। আগামী ২০১৬ সালের শেষের দিকে আনুষ্ঠানিকভাবে পৃথিবীর ৮টি ডেস্টিনেশনে ফ্লাইট পরিচালনা করবে ফিরনাছ এয়ারওয়েজ।ব্রিটেনে  ক্রমবর্ধমান বাংলাদেশী, ইন্ডিয়ান, পাকিস্তানী, নেপালিজ, ইরানী, ওয়েস্ট আফ্রিকা এবং মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন দেশের মানুষের চাহিদা পূরনে এই উদ্যোগ নতুন এক মাইলফলক বললেন উদ্যোক্তারা। 
গত ৮ ডিসেম্বর মঙ্গলবার ইস্ট লন্ডনে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে নতুন এই উদ্যোগের বিস্তারিত তুলে ধরেন ফিরনাছ কর্তৃপক্ষ। অনুষ্ঠানের শুরুতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন ফিরনাছের চীফ এক্সিকিউটিভ অফিসার কাজী শফিকুর রহমান। সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন ম্যানেজিং ডাইরেক্টর কেবিন জন স্টিল।

সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, বিশ্বের বিভিন্ন রুটে এখনো বিমান সার্ভিসের ব্যাপক চাহিদা রয়েছে। ফিরনাছ এয়ারওয়েজ এসব রুটকে টার্গেট করে যাত্রীদের চাহিদা পূরনে ভুমিকা রাখতে চায়। শুরুতে ২৫০ থেকে ৩০০ সীটের এয়ারক্রাফট নিয়ে যাত্রা শুরু করবে ফিরনাছ। পারিবারিক পরিবেশ এবং বিশ্বমানের সেবা নিশ্চিত করাই আমাদের অঙ্গিকার। বিশেষ করে মুসলিম দেশগুলোতে ভ্রমনকারী যাত্রীদের জন্য সম্পূর্ন হালাল খাবার, পরিবেশ এবং ইবাদতের বিশেষ ব্যবস্থা নিশ্চিত করা হবে। শিশুদের জন্য থাকবে ব্যতিক্রমি ব্যবস্থা।

ফিরনাছের সিইও কাজী শফিকুর রহমান বলেন, কম মূল্যে বিশ্বমানের সেবা নিশ্চিত করতে চায় ফিরনাছ এয়ারওয়েজ। প্র্থামিকভাবে ব্রিটেন থেকে বিশ্বের ৮টি ডেস্টিনেশনে সরাসরি ফ্লাইট চালু হবে। এর মধ্যে সিলেট, ইস্তাম্বুল, টরেন্টো, ইসলামাবাদ, ঘানা, রিয়াদ ও নয়া দিল্লিকে টার্গেট রুট হিশেবে ধরা হয়েছে। এয়ারলাইন্সখাতে এখানো যে চাহিদা রয়েছে, তা পূরনে ফিরনাছ ভ’মিকা রাখবে। বৃটেনে ফিরনাছের হাব প্রতিষ্টায় ইতিমধ্যে লন্ডন, ম্যানচেষ্টার ও বার্মিংহামের এয়ারপোর্ট অথরিটির সাথে প্রয়োজনীয় চুক্তি বাস্তবায়ন হয়েছে। যাত্রীদের নিরাপত্তাকে সর্বোচচ অগ্রাধিকার দিয়ে ফিরনাছ ফ্লাইট পরিচালনা করবে বলে জানান তিনি।

উল্লেখ্য শুরুতে ৩টি এয়ারক্রাফট নিয়ে যাত্রা শুরু হয়ে আগামী ৫ বছরের মধ্যে ফিরনাছের বহরে যুক্ত হবে আরো ৫টি ব্রান্ড নিউ এয়ারক্রাফট। যা ২০২০ সালের মধ্যে মোট এয়ারক্রাফটের সংখ্যা দাড়াঁবে ৭টি। এ জন্য ফিরনাছ ম্যানেজম্যান্ট ঠিম শীঘ্রই  বাজারে মূলধন সংগ্রহে কাজ করবে। বোয়িং ৭৬৭ এয়ারক্রাফট লিজের জন্য ৫০ মিলিয়ন পাউন্ড সংগ্রহের চেষ্টা চালাবে। 
সংবাদ সম্মেলনে এছাড়াও অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, ফিরনাছের হেড অব কর্পোরেট প্লানিং আব্দুল রকিব।

Share This Post

Post Comment