১ রানে হারল মুশফিকের সিলেট

1448383020ব্রিকলেন রিপোর্টঃ  গতকালের ন্যায় আজও তার দল সিলেট সুপার স্টার্স হেরে গেল ১ রানে! লো স্কোরিং এই ম্যাচে বরিশাল বুলসের দেয়া ১০৯ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৯ উইকেট হারিয়ে ১০৭ রান তুলতে পারে সিলেট।
১০৯ রানের ছোট লক্ষ্যে ব্যাট করতে নামা সিলেটকে প্রথম ধাক্কা দেন আল আমিন হোসেন। নিজের প্রথম ওভারেই ফিরিয়ে দেন মুমিনুল হককে। কিন্তু আসল কারিশমা দেখান ইনিংসের চতুর্থ আর নিজের দ্বিতীয় ওভারে। পরপর তিন বলে রবি বোপারা, নুরুল হাসান ও মুশফিককে সাজঘরে ফিরিয়ে হ্যাটট্রিক তুলে নেন এই পেসার।
১৮ রানেই চার উইকেট হারিয়ে ধুঁকতে থাকা সিলেটকে টেনে তোলার চেষ্টা করেন দিলশান মুনাবিরা। অপরপ্রান্তে খুঁটি হয়ে দাঁড়িয়ে থাকেন ওয়াইজ শাহ। দলীয় ৬১ রানের মাথায় ২৯ বলে ১১ রান করে শাহ বিদায় নেন। একই ওভারে মুনাবিরাকেও বিদায় দেন তাইজুল ইসলাম।
দলের টেল এন্ডাররা খণ্ড খণ্ড প্রতিরোধ গড়ে তুললেও জয়ের জন্য তা যথেষ্ঠ ছিল না। তাইজুল ইসলামের করা শেষ ওভার থেকে সিলেটের জয়ের জন্য দরকার ছিল ৮ রান। কিন্তু ৬ রান তুলতেই শেষ হয় নির্ধারিত ওভারের খেলা। বরিশালের কাছে ১ রানে হেরে গেল মুশফিকুর রহিমের সিলেট। সর্বোচ্চ ৩৬ রান আসে মুনাবিরার ব্যাট থেকে। ৪ ওভার বল করে ৩৬ রান খরচায় ৫টি উইকেট তুলে নেন আল আমিন। তাইজুলের শিকার ৩ উইকেট। এদিকে মোহাম্মদ সামি মাত্র ১টি উইকেট পেলেও চার ওভারে ১ মেডেনসহ দেন মাত্র ৯ রান।
এর আগে ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ে মাত্র ১০৮ রানেই গুটিয়ে যায় বরিশাল বুলস। মিরপুরে টস জিতে ব্যাট করতে নেমে ১৯.৩ ওভারে সবকটি উইকেট হারায় তারা।
দারুণ শুরু করে বরিশালের দুই ওপেনার শাহরিয়ার নাফিস ও রনি তালুকদার। ৩.৪ বলে ৩৪ রান তুলে ফেলে উদ্বোধনী জুটি। কিন্তু প্রভাত যে সব সময় দিনের পূর্বাভাস দিতে পারে না সেটা হাড়ে হাড়ে টের পায় বরিশাল।
শুভাশিশ রয়ের বলে উইকেটের পিছনে ক্যাচ দিয়ে ১৫ বলে ২০ রান করে ফিরে যান রনি। এরপর নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারাতে থাকা দলটি ১৯.৩ ওভারে ১০৮ রানে গুটিয়ে যায়। সর্বোচ্চ ২৪ রান আসে নাদিফ চৌধুরির ব্যাট থেকে। এছাড়া রনি তালুকদার ২০ ও সাব্বির রহমান করেন ১৫ রান। ৪ ওভার বল করে ১৮ রান খরচায় ৩ উইকেট নিয়ে সিলেটের সফলতম বোলার নাজমুল ইসলাম।
এই জয়ে ২ ম্যাচে দ্বিতীয় জয়ের দেখা পেল বরিশাল বুলস। আর ২ ম্যাচে দ্বিতীয় হারের স্বাদ পেল সিলেট।

Share This Post

Post Comment