ই-কমার্স ফেয়ারে ২ বিলিয়ন ডলার বিনিয়োগ প্রত্যাশা ; আইসিটি প্রতিমন্ত্রী পলকে মুগ্ধ লন্ডন

e fairজুয়েল রাজ: শুক্রবার শেষ হলো লন্ডনে দুইদিন ব্যাপী ২য় বাংলাদেশ ই-কমার্স ফেয়ার ২০১৫ । ১৩ নভেম্বর বাণিজ্য মন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে এই মেলার উদ্বোধন করেন। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

মেলার উদ্বোধনী দিনে বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষের সাথে ৩টি প্রতিষ্ঠানের এবং আইসিটি ডিভিশনের সাথে ১টি প্রতিষ্ঠানসহ মোট ৪টি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়। বাংলাদেশ হাই-টেক পার্কের সাথে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত ৩টি প্রতিষ্ঠান হলো (১) টেলিকম এশিয়া (২) সিমার্ক (বাংলাদেশ) লিমিটেড ও (৩) টেকশেড প্রাইভেট লিমিটেড। অপরপক্ষে আইসিটি ডিভিশনের সাথে সমঝোতা স্বারক স্বাক্ষরিত হয় পেজা বাংলাদেশ লিমিটেডের সাথে। সিঙ্গাপুর ভিত্তিক টেলিকম এশিয়ার প্রধান নির্বাহী মো: শাফায়েত আলম পেমেন্ট গেটওয়ে, ট্রিপল প্লে সলিউশন, আইটি ও কনসিউমার ইলেকট্রনিক্স প্রোডাক্ট এবং প্রাইভেট এসটিপি ইত্যাদি খাতে আগামী কয়েক বছরে ১ বিলিয়ন ডলার বিনিয়োগের আশাবাদ ব্যক্ত করে।

সিমার্ক (বাংলাদেশ) লিমিটেড আইটি একাডেমী, সফটওয়্যার ও হার্ডওয়্যার খাতে ৫০-১০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার বিনিয়োগের প্রত্যাশা ব্যক্ত করেছেন। লন্ডন-ভিত্তিক আইটি প্রতিষ্ঠান টেকশেড প্রাইভেট লিমিটেড নতুন কম্পিউটার ব্রান্ড “ডিজি”(ডেলটা গলফ) প্রস্তুতকরণের প্রত্যাশা জানিয়ে আগামী দুই বছরে প্রাথমিকভাবে ৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলার বিনিয়োগের তথ্য জানালেও কোম্পানীর ব্যবস্থাপনা পরিচালক সুশান্ত দাস গুপ্ত জানান বিনিয়োগের পরিমাণ আরও অনেক বেশী হবে, প্রাথমিক বিনিয়োগ হিসাবে আমরা এটা নির্ধারন করেছি। বাংলাদেশী ফ্রি-ল্যান্সারদের বহুল-প্রতিক্ষীত অনলাইন পেমেন্ট গেটওয়ে সমস্যা সমাধানে পেজা বিডির সাথেও একই সাথে আরেকটি সমঝোতা স্বারক স্বাক্ষর করে আইসিটি ডিভিশন।

প্রাথমিকভাবে পেজা তাদের বিনিয়োগের পরিমাণ উল্লেখ না করলেও তা উল্লেখযোগ্য মাত্রার হবে বলে আশা প্রকাশ করেন পেজা’র সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যার নাদিমুর রহমান। সেই অনুযায়ী আগামী কয়েক বছরে এই বিনিয়োগ ২ বিলিয়ন পলার অতিক্রম করবে বলে প্রত্যাশা করা হচ্ছে।

প্রতিবছরই সরকারী খরচে এই জাতীয় মেলা হয়ে থাকে। বিলিয়ন বিলিয়ন ডলারের চুক্তি স্বাক্ষর হয়। আদৌ এই পরিমাণ বিনিয়োগ হয় কিনা এই নিয়ে নানা প্রশ্ন রয়েছে। সম্প্রতি লন্ডনে ইনভেষ্টমেন্ট রোড শো, পর্যটন ফেয়ার, সর্বশেষ ই কমার্স ফেয়ার অনুষ্ঠিত হল, তাই মেলা শেষে প্রেস কনফারেন্সে সাংবাদিক দের নানা রকম প্রশ্নের সন্মুখিন হন প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলক। উপস্থিত সাংবাদিকদের প্রতিটা প্রশ্নের উত্তর এতো সুন্দর ভাবে যুক্তি প্রমাণ সহ হাসিমুখে উপস্থাপন করেছেন যে উপস্থিত সাংবাদিকরা আইসিটি প্রতিমন্ত্রীর জুনায়েদ আহমেদ পলকের উপস্থাপনায় মুগ্ধ হয়েছেন। মন্ত্রী হিসাবে লন্ডনে পলকের প্রথম সফরেই মানুষের মন জয় করে নিলেন তিনি।

ব্রিটেনে নিযুক্ত বাংলাদেশের হাই-কমিশনার মো: আব্দুল হান্নান, ব্রিটেনের অল পার্টি পার্লামেন্টারি গ্রুপের চেয়ার পল স্কেলী এমপি, বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি আব্দুল মাতলুব আহমেদ, বাংলাদেশ হাই-টেক পার্কের ব্যবস্থাপনা পরিচালক হোসনে আরা বেগম, কম্পিউটার জগতের চিফ এক্সিকিউটিভ আব্দুল ওয়াহেদ তমাল ও শমী কায়সার সহ ব্রিটেনের ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দ ও মেলায় যোগ দেন।

Share This Post

Post Comment